June 22, 2024, 12:34 am

কাজী ফিরোজ রশীদকে জাপার দলীয় পদ থেকে অব্যাহতি

Reporter Name

কাজী ফিরোজ রশীদকে জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যানের পদসহ দলের সব পদ-পদবি থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। একই সঙ্গে দলটির প্রেসিডিয়াম সদস্য সুনীল শুভ রায়কেও ওই পদসহ দলের সব পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।

আজ শুক্রবার বিকেলে জাতীয় পার্টির দপ্তর থেকে গণমাধ্যমে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, জাপার চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ কাদের দলের গঠনতন্ত্রের ক্ষমতাবলে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন; যা ইতিমধ্যে কার্যকর করা হয়েছে। তবে কী কারণে দলের এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, এ বিষয়ে কিছু উল্লেখ করা হয়নি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেসবুকে আমরা

স্বদেশে ফিরছে লুণ্ঠিত শিল্প নিদর্শনস্বদেশে ফিরছে লুণ্ঠিত শিল্প নিদর্শন যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কের বিখ্যাত মেট্রোপলিটন মিউজিয়াম থাইল্যান্ড ও কম্বোডিয়ার ১৬টি প্রাচীন শিল্প নিদর্শন ফেরত দেবে। নিদর্শনগুলো প্রত্নতাত্ত্বিক স্থান বা ঐতিহ্যবাহী স্থাপনা থেকে অবৈধভাবে নেওয়া হয়েছিল জানার পর এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে মেট নামে বেশি পরিচিত মার্কিন জাদুঘরটি। শুক্রবার নিউ ইয়র্কে জাদুঘর কর্তৃপক্ষ এবং ফেডারেল প্রসিকিউটররা শিল্প নিদর্শনগুলো ফিরিয়ে দেওয়ার ঘোষণা দেন। শিল্পকর্মগুলো জাদুঘরে সরবরাহ করেছিলেন ব্রিটিশ শিল্প ব্যবসায়ী ডগলাস ল্যাচফোর্ড। ২০১৯ সালে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় ‘পুরাকীর্তি পাচারের বিশাল নেটওয়ার্ক চালানোর’ দায়ে অভিযুক্ত করা হয়েছিল তাঁকে। প্রসিকিউটররা বলেছেন, মেট জাদুঘর স্বেচ্ছায় নিদর্শনগুলো ফিরিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। মার্কিন হোমল্যান্ড সিকিউরিটি দপ্তরের গোয়েন্দা ইরিন কিগ্যান শুক্রবার এক বিবৃতিতে বলেন, ‘ডগলাস ল্যাচফোর্ডের ঘটনা তদন্তের সঙ্গে জড়িত শিল্প নিদর্শনগুলো কিভাবে একে একে বেরিয়ে আসছে আজকের ঘোষণায় তা-ই উঠে এসেছে। শিল্পকর্মগুলো বেপরোয়াভাবে হাতিয়ে নেওয়া হয়েছিল। ’ ১৪টি খেমার ভাস্কর্য কম্বোডিয়া এবং দুটি থাইল্যান্ডে ফেরত পাঠানো হবে। মেটের পরিচালক ম্যাক্স হোলেন আরেকটি পৃথক বিবৃতিতে বলেছেন, তাঁরা কম্বোডিয়া এবং যুক্তরাষ্ট্রের অ্যাটর্নি অফিসের সঙ্গে বহু বছর ধরে এই নিদর্শনগুলোর বিষয়টি সমাধানের জন্য কাজ করে আসছেন। শিল্প নিদর্শনগুলো খ্রিস্টীয় নবম থেকে ১৪ শ শতকের মধ্যকার। মোটামুটিভাবে প্রাচীন আংকর যুগের। জাদুঘরের দেওয়া তথ্য অনুসারে এগুলোতে বৌদ্ধ এবং হিন্দু উভয় ধর্মের প্রভাব দেখা যায়। তদন্তকারীরা গত দশকে যুক্তরাষ্ট্র এবং যুক্তরাজ্যজুড়ে ডগলাস ল্যাচফোর্ডের চুরি করা বেশ কিছু প্রাচীন শিল্প নিদর্শন খুঁজে পেয়ে উদ্ধার করেছেন। যুক্তরাষ্ট্রে আইনি অভিযোগের মুখোমুখি হওয়ার সময় ২০২০ সালে তাঁর মৃত্যু হয়। কম্বোডিয়ায় ১৯৬০-এর দশকের মাঝামাঝি থেকে ১৯৯০-এর দশকের শেষ পর্যন্ত তিন দশকের গৃহযুদ্ধের মধ্যে বেশির ভাগ প্রাচীন নিদর্শন লুণ্ঠিত হয়েছিল। এ সময় বামপন্থী খেমাররুজরা ক্ষমতায় ছিল।স্বদেশে ফিরছে লুণ্ঠিত শিল্প নিদর্শন যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কের বিখ্যাত মেট্রোপলিটন মিউজিয়াম থাইল্যান্ড ও কম্বোডিয়ার ১৬টি প্রাচীন শিল্প নিদর্শন ফেরত দেবে। নিদর্শনগুলো প্রত্নতাত্ত্বিক স্থান বা ঐতিহ্যবাহী স্থাপনা থেকে অবৈধভাবে নেওয়া হয়েছিল জানার পর এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে মেট নামে বেশি পরিচিত মার্কিন জাদুঘরটি। শুক্রবার নিউ ইয়র্কে জাদুঘর কর্তৃপক্ষ এবং ফেডারেল প্রসিকিউটররা শিল্প নিদর্শনগুলো ফিরিয়ে দেওয়ার ঘোষণা দেন। শিল্পকর্মগুলো জাদুঘরে সরবরাহ করেছিলেন ব্রিটিশ শিল্প ব্যবসায়ী ডগলাস ল্যাচফোর্ড। ২০১৯ সালে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় ‘পুরাকীর্তি পাচারের বিশাল নেটওয়ার্ক চালানোর’ দায়ে অভিযুক্ত করা হয়েছিল তাঁকে। প্রসিকিউটররা বলেছেন, মেট জাদুঘর স্বেচ্ছায় নিদর্শনগুলো ফিরিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। মার্কিন হোমল্যান্ড সিকিউরিটি দপ্তরের গোয়েন্দা ইরিন কিগ্যান শুক্রবার এক বিবৃতিতে বলেন, ‘ডগলাস ল্যাচফোর্ডের ঘটনা তদন্তের সঙ্গে জড়িত শিল্প নিদর্শনগুলো কিভাবে একে একে বেরিয়ে আসছে আজকের ঘোষণায় তা-ই উঠে এসেছে। শিল্পকর্মগুলো বেপরোয়াভাবে হাতিয়ে নেওয়া হয়েছিল। ’ ১৪টি খেমার ভাস্কর্য কম্বোডিয়া এবং দুটি থাইল্যান্ডে ফেরত পাঠানো হবে। মেটের পরিচালক ম্যাক্স হোলেন আরেকটি পৃথক বিবৃতিতে বলেছেন, তাঁরা কম্বোডিয়া এবং যুক্তরাষ্ট্রের অ্যাটর্নি অফিসের সঙ্গে বহু বছর ধরে এই নিদর্শনগুলোর বিষয়টি সমাধানের জন্য কাজ করে আসছেন। শিল্প নিদর্শনগুলো খ্রিস্টীয় নবম থেকে ১৪ শ শতকের মধ্যকার। মোটামুটিভাবে প্রাচীন আংকর যুগের। জাদুঘরের দেওয়া তথ্য অনুসারে এগুলোতে বৌদ্ধ এবং হিন্দু উভয় ধর্মের প্রভাব দেখা যায়। তদন্তকারীরা গত দশকে যুক্তরাষ্ট্র এবং যুক্তরাজ্যজুড়ে ডগলাস ল্যাচফোর্ডের চুরি করা বেশ কিছু প্রাচীন শিল্প নিদর্শন খুঁজে পেয়ে উদ্ধার করেছেন। যুক্তরাষ্ট্রে আইনি অভিযোগের মুখোমুখি হওয়ার সময় ২০২০ সালে তাঁর মৃত্যু হয়। কম্বোডিয়ায় ১৯৬০-এর দশকের মাঝামাঝি থেকে ১৯৯০-এর দশকের শেষ পর্যন্ত তিন দশকের গৃহযুদ্ধের মধ্যে বেশির ভাগ প্রাচীন নিদর্শন লুণ্ঠিত হয়েছিল। এ সময় বামপন্থী খেমাররুজরা ক্ষমতায় ছিল।